Redi tel ba kastar ayelera upakarita

রেডির তেল বা ক্যাস্টর অয়েলের উপকারিতা

রেড়ির তেল একটি অতি সাধারণ এবং প্রাকৃতিক গুণসম্পন্ন ভেষজ তেল যা দৈনন্দিন নানান কাজে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। ত্বক , চুল ও স্বাস্থ্য সম্মৃদ্ধ এই প্রাকৃতিক উপকরণে আছে অ্যান্টি ইনফ্লামেটরি এন্টিব্যাক্টেরিয়াল প্রপার্টিস( যা প্রদাহ হ্রাস করে , জীবাণু সংক্রমন কমায় ) তার ব্যবহারের কথা আজ আমরা জানবো।

মেয়েরা সৌন্দর্য সচেতন। তারা রূপচর্চা করেন। তবে হাল আমলে দৈহিক সৌষ্ঠব আর সৌন্দর্য নিয়ে ছেলেদের মাথাব্যথাও কম নয়। পোশাক-পরিচ্ছদ আর রূপসজ্জাতেও বর্তমানে তাদের সচেতনতার ছাপ এসেছে।

তবে সচেতনতা যাই থাকুন না কেন, আজকাল এর পাশাপাশি নারি-পুরুষ উভয়ের সৌন্দর্য বিষয়ক একটা দুঃশ্চিতাও লক্ষ্য করার মতো। তারা অভিযোগের সুরে উচ্চারণ করে বলেন, ‘চুল পড়ে যাচ্ছে।’ আর যাদের চুল পড়ে গিয়ে সত্যি সত্যি টাক সমস্যা শুরু হয়ে গেছে, তাদের দূঃখের অন্ত নেই। কি করে তারা টাক ঢাকবেন, তার জন্য টুপি থেকে শুরু করে পরচুলাও ব্যবহার করেন।

নারির কেশ বিন্যাস যুগ যুগ ধরেই সৌন্দর্য চর্চার একটি বড় অংশ হিসেবে বিবেচিত। কতো ধরণের চুল ধোওয়ার উপকরণ, কতো ধরণের কেশ সাজানোর চিরুনি, কতো ধরণের সুরভিত তৈল, কতো ধরণের সুগন্ধি- এ সব তো যুগের পর যুগ বাজারে এসেছে। উদ্দেশ্য ছিলো চুলের মসৃণতা বৃদ্ধি করা, লম্বা চুল গজাতে সাহায্য করা কিম্বা দীর্ঘ সময় চুলের সৌন্দর্য অটুট ধরে রাখা। জেনে নেই কিভাবে তা ব্যবহার করতে হয়।

৪ চামচ ক্যাস্টর অয়েল (ওষুধের দোকানে পাওয়া যায়) একটা বাটিতেনিয়ে সামান্য গরম করে নিন। আঙুলের ডগায় তেল নিয়ে মাথার তালুতে অর্থাৎ চুলের গোড়ায় ঘষে ঘষে মেখে ৫ থেকে ১০ মিনিট ম্যাসেজ করুন। বাকি তেল সারা চুলে মেখে নিন। চিরুনি দিয়ে এরপর মাথা আঁচড়ান। একেটা বড় তোয়ালে গরম পানিতে চুবিয়ে নিংড়ে নিয়ে মাথায় ঘোমটা দেওয়ার মতো জড়িয়ে সারা চুল সামনের দিকে এনে তোয়ালে দিয়ে মুড়ে রাখুন, ( যেভাবে তোয়ালে বা গামচা মুড়ে ভিজে চুল নিংড়ানো হয়) ।২০ মিনিট এভাবে রাখুন। পরে শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। ভরুর লোম যদি পাতলা হয় তাহলে গরম তেল ভুরুতেও মাখতে পারেন । যাদের চুল পাতলা তাদের পক্ষে এ কন্ডিশনার খুব উপযোগী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *