সৃষ্টি কর্তার সাথে সম্পর্ক

সৃষ্টি কর্তার সাথে সম্পর্ক

সৃষ্টি কর্তার সাথে সম্পর্ক হে মানব সম্প্রদায় ! তোমরা তোমাদের পালনকর্তার ইবাদত করো। যিনি তোমাদেরকে এবং তোমাদের পূর্ববর্তীদেরকে সৃষ্টি করেছেন। তাতে আশা করা যায়, তোমরা পরহেযগারিতা অর্জন করতে পারবে। (সুরা বাক্বারাহ আয়াত নং২১) । মহান আল্লাহ বলেন আর তোমরা আল্লাহর ইবাদত করো এবং তার সাথে কাউকে কোনো কিছু শরীক করো না। (সুরা নিসা আয়াত নং ৩৬)। সৃষ্টিকর্তার সাথে নিবিড় সম্পর্ক মানুষের জীবনে বড় হতে সহযোগিতা করে। সৃষ্টিকর্তার সাথে সম্পর্কের সবচেয়ে বড় উপকারিতা হচ্ছে মনের প্রশান্তি।…

Read More

সবর ও ধৈর্য্য মহৎ গুণ

সবর ও ধৈর্য্য মহৎ গুণ

সবর ও ধৈর্য্য মহৎ গুণ; সবর শব্দের অর্থ হলো ধরে রাখা, বন্দি করে রাখা। যখন কোনো মুরগীকে খাচায় বন্দী করে রাখা হয়, তখন তার জন্য আরবীতে সবর শব্দ ব্যবহ্রত হয়। জীবনে সফল হতে সবরের বিকল্প নেই। যে কয়জন নবীকে মহান আল্লাহর সর্বশ্রেষ্ট পাঁচ জন নবী বলে গণ্য করেছেন, সেই পাঁচ জনের সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য সবর। যেমন আল্লাহ তা‘আলা বলেন তুমি দৃঢ় প্রতিজ্ঞা নবীগণের মতো ধৈর্য ধারন করো। (সুরা আহকফ আয়াত নং ৩৫) । সবর মূলত…

Read More

সফলতার সূ্ত্র কী

সফলতার সূ্ত্র কী

সফলতার সূ্ত্র কী- সালাফে সলেহীনের একটি বৈশিষ্ট্য হচ্ছে ,তারা ফজরের পর ঘুমাতেন না। যদি সমগ্র রাতে ক্লান্তিকর কোনো সফরে বা কাজে থাকেন, তবুও তারা ফজরের পরে ঘুমাতেন না। বরং সূর্য উঠার অপেক্ষা করতেন। সূর্য উঠার পর বিশ্রামের জন্য ঘুমাতে যেতেন। হযরত আনাস (রাঃ) থেকে বর্ণীত তিনি বলেন রসুল (সাঃ) বলেছেন, যে ব্যক্তি ফজরের সালাত জামা‘আতের সাথে আদায় করবে, অত:পর বসে থেকে মহান আল্লাহর যিকির করতে থাকবে সূর্য উঠা পর্যন্ত, সে একটি হজ্জ ও ওমরাহ করার…

Read More

ঋতুবতী মহিলা দৈনন্দিন পঠিতব্য দু‘আ পড়তে পারবে কী?

ঋতুবতী মহিলা দৈনন্দিন পঠিতব্য দু‘আ পড়তে পারবে কী?

ঋতুবতী মহিলা দৈনন্দিন পঠিতব্য দু‘আ পড়তে পারবে কী? ঋতুবতী মহিলারা কি দৈনন্দিন পঠিতব্য দু‘আ-দরুদ পড়তে ও আযানের জবাব দিতে পারবে কি? মূল কুরআনকে স্পর্শ করে তেলাওয়াত করা ও বায়ুতুল্লাহ ত্বাওয়াফ করা ছাড়া ঋতুবতী অবস্থায় মহিলারা দৈনন্দিন পাঠিতব্য প্রয়োজনীয় দু‘আ-দরুদ, আযানের জওয়াব ও দু‘আ এবং সকল প্রকার তাসবীহ তাহলীল ও তাকবির পাঠ করতে পারবে। রসুল (সাঃ)-এর জামানায় ঋতুবতী মহিলাগণ ঈদের খুৎবা ও দু‘আয় শরীক হতেন। উম্মু আত্বীয়া (রাঃ) হতে বর্ণীত, তিনি বলেন দুই ঈদের দিনে ঋতুবতী…

Read More

মেয়ে শিশুর ইসলামিক অর্থসহ নাম

মেয়ে শিশুর ইসলামিক অর্থসহ নাম

মেয়ে শিশুর ইসলামিক অর্থসহ নামঃ ১.নিশাত =অর্থ =আনন্দ ২.নাঈমাহ =অর্থ =সুখি জীবন যাপনকারীনী ৩.নাফীসা =অর্থ =মূল্যবান ৪.মাসূমা =অর্থ =নিষ্পাপ ৫.মালিহা =অর্থ =রুপসী ৬.হাসিনা =অর্থ =সুন্দরি ৭.হাবীবা =অর্থ =প্রিয়া ৮.ফারিহা =অর্থ =সুখি ৯.দীবা =অর্থ = সোনালী ১০.বিলকিস =অর্থ =রাণী ১১.আফরা=অর্থ =সাদা ১২.সাইয়ারা=অর্থ =গাড়ী ১৩.আফিয়া =অর্থ =পুণ্যবতী ১৪.মাহমুদা =অর্থ =প্রশংসিতা ১৫.রায়হানা =অর্থ =সুগন্ধি ফুল ১৬.রাশীদা =অর্থ =বিদুষী ১৭.রামিসা =অর্থ =নিরাপদ ১৮.রাইসা =অর্থ = রাণী ১৯.রাফিয়া=অর্থ = উন্নত ২০.নুসরাত =অর্থ = সাহায্য ২১.তাসমিয়া =অর্থ = নামকরণ ২২.তাসনীম =অর্থ…

Read More

হজ্জ ও ওমরাহ

হজ্জ ও ওমরাহ

হজ্জ ও ওমরাহঃ আরাফার দিনের ফজিলতঃ আরফার দিন মানুষের পাপ মোচনের দিন। সেদিন মানুষ সবচেয়ে বেশি ক্ষমা পায়। আয়েশা (রাঃ) বলেন রসুল (সাঃ) বলেছেন, আল্লাহ আরাফার দিন মানুষকে সবচেয়ে বেশি জাহান্নাম থেকে মুক্তি দেন। তিনি তাদের অতি নিকটবর্তী হন এবং তাদের নিয়ে ফেরেশতাদের সামনে গর্ব প্রকাশ করে বলেন, তারা কী চাচ্ছে? (মুসলিম হাঃ ১৩৪৮, ইবনে মাজাহ হাঃ৩১২৮, মিশকাত হাঃ২৫৯৪)। এই হাদীস থেকে প্রমাণিত হয় আল্লাহ তা‘আলা আরাফার দিন মানুষকে যত বেশি ক্ষমা করেন অন্য কোনো…

Read More

রজব ও শাবান মাসে নির্দিষ্টভাবে কোনো দো‘আ পড়ার বিধান আছে কি?

রজব ও শাবান মাসে নির্দিষ্টভাবে কোনো দো‘আ পড়ার বিধান আছে কি?

রজব ও শাবান মাসে নির্দিষ্টভাবে কোনো দো‘আ পড়ার বিধান আছে কি? রজব ও শা‘বান মাসে নির্দিষ্ট ভাবে কোনো দু‘আ পড়ারা কথা হাদীসের গ্রন্থে বিশুদ্ধ কোনো সূত্রে বর্ণিত নেই। তবে আনাস (রাঃ) থেকে বর্ণীত একটি হাদীস রয়েছে, রসুল (সাঃ) বলেছেন রজব ও শা‘বান মাস আসলে এই দু‘আ পাঠ করতেন,,, আল্লাহুম্মা বারিক লানা ফি রজাবিন ওয়া শা‘বানা ওয়া বাল্লিগনা রমাদনা। অর্থঃ হে আল্লাহ তুমি আমাদের রজব ও শা‘বান মাসে বরকত দান করো এবং রমযান মাসে পৌঁছে দাও,…

Read More

রাসুল (সাঃ)-এর চল্লিশটি সহীহ হাদীস

রাসুল (সাঃ)-এর চল্লিশটি সহীহ হাদীস

রাসুল (সাঃ)-এর চল্লিশটি সহীহ হাদীসঃ ১)  রসূলুল্লাহ (সাঃ) বলেন- যে ব্যক্তি আমার চল্লিশটি হাদীস আমার উম্মতের কাছে পৌঁছাবে  তার জন্য আমি কিয়ামতের দিন বিশেষ ভাবে সুপারিশ করব। ২)  মানুষের মধ্যে যারা মৃত্যুকে বেশি স্মরণ করে এবং উহার জন্য প্রস্তুতি নেয় তারাই সবচেয়ে বুদ্ধিমান। ৩) প্রত্যেক জিনিসের যাকাত আছে, আর দেহের যাকাত হচ্ছে রোজা। ৪)  যে তার সময় আল্লাহর জন্য ব্যয় করে না  তার জন্য জীবন অপেক্ষা মৃত্যু শ্রেয়। ৫)  যারা সবসময় ইস্তিগফার (ক্ষমা প্রার্থনা) করে…

Read More

দরুদে ইব্রাহীম পাঠের পূর্বে বিসমিল্লাহ পড়তে হবে কি?

দরুদে ইব্রাহীম পাঠের পূর্বে বিসমিল্লাহ পড়তে হবে কি?

দরুদে ইব্রাহীম পাঠের পূর্বে বিসমিল্লাহ পড়তে হবে কি? না, দুরুদে ইব্রাহীম পাঠের পূর্বে বিসমিল্লাহ পড়তে হবে না। কেননা তা রসুল (সাঃ) হতে প্রমাণিত নয়। বরং রসুল (সাঃ) আমাদেরকে যেভাবে পড়তে বলেছেন ঠিক সেভাবেই পড়তে হবে। আবু মূসা ইবনে ত্বালহা তার পিতা থেকে বর্ণনা করেন, তিনি বলেন আমরা রসুল (সাঃ)-কে জিজ্ঞেস করলাম হে আল্লাহর রসুল ! আমরা আপনার উপর কীভাবে দরুদ পড়ব? তিনি বললেন এভাবে পড়বে- উচ্চারণঃ আল্লা-হুম্মা ছাল্লি আলা মুহাম্মাদিউ ওয়া আলা আলি মুহাম্মাদিন কামা…

Read More

গর্ভাবস্থায় রমযানের ছিয়াম রাখতে না পরলে করনীয় কি?

গর্ভাবস্থায় রমযানের ছিয়াম রাখতে না পরলে করনীয় কি?

গর্ভাবস্থায় রমযানের ছিয়াম রাখতে না পরলে করনীয় কি? গর্ভাবস্থায় রমযানের ছিয়াম রাখতে পারিনি। এখন যদি প্রতিমাসে সোম ও বৃহস্পতিবার এবং আরবী মাসের ১৩, ১৪ ও ১৫ তারিখ নিয়মিত ছিয়াম পালন করা হয়। তাহলে ঐ ৩০ টি ছিয়ামের ক্বাযা বা কাফ্ফারা আদায় হবে? এক্ষেত্রে করণীয় কী? না নফল ছিয়াম পালনের দ্বারা ফরয ছিয়ামের ক্বাযা বা কাফফারা আদায় হবে না। নফল ছিয়ামের দিনে ক্বাযা আদায় করতে চাইলে শুধু ক্বাযার নিয়্যতেই আদায় করতে হবে। ক্বাযার পাশাপাশি নফলের নিয়্যত…

Read More
1 2