সৃষ্টি কর্তার সাথে সম্পর্ক

সৃষ্টি কর্তার সাথে সম্পর্ক

সৃষ্টি কর্তার সাথে সম্পর্ক হে মানব সম্প্রদায় ! তোমরা তোমাদের পালনকর্তার ইবাদত করো। যিনি তোমাদেরকে এবং তোমাদের পূর্ববর্তীদেরকে সৃষ্টি করেছেন। তাতে আশা করা যায়, তোমরা পরহেযগারিতা অর্জন করতে পারবে। (সুরা বাক্বারাহ আয়াত নং২১) । মহান আল্লাহ বলেন আর তোমরা আল্লাহর ইবাদত করো এবং তার সাথে কাউকে কোনো কিছু শরীক করো না। (সুরা নিসা আয়াত নং ৩৬)। সৃষ্টিকর্তার সাথে নিবিড় সম্পর্ক মানুষের জীবনে বড় হতে সহযোগিতা করে। সৃষ্টিকর্তার সাথে সম্পর্কের সবচেয়ে বড় উপকারিতা হচ্ছে মনের প্রশান্তি।…

Read More

সবর ও ধৈর্য্য মহৎ গুণ

সবর ও ধৈর্য্য মহৎ গুণ

সবর ও ধৈর্য্য মহৎ গুণ; সবর শব্দের অর্থ হলো ধরে রাখা, বন্দি করে রাখা। যখন কোনো মুরগীকে খাচায় বন্দী করে রাখা হয়, তখন তার জন্য আরবীতে সবর শব্দ ব্যবহ্রত হয়। জীবনে সফল হতে সবরের বিকল্প নেই। যে কয়জন নবীকে মহান আল্লাহর সর্বশ্রেষ্ট পাঁচ জন নবী বলে গণ্য করেছেন, সেই পাঁচ জনের সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য সবর। যেমন আল্লাহ তা‘আলা বলেন তুমি দৃঢ় প্রতিজ্ঞা নবীগণের মতো ধৈর্য ধারন করো। (সুরা আহকফ আয়াত নং ৩৫) । সবর মূলত…

Read More

তিন বা পাঁচ বছর মেয়াদে বাগান বিক্রি করা যাবে কী?

তিন বা পাঁচ বছর মেয়াদে বাগান বিক্রি করা যাবে কী?

তিন বা পাঁচ বছর মেয়াদে বাগান বিক্রি করা যাবে কী? ফল পুরিপক্ব হওয়ার পূর্বে এবং এক সাথে কয়েক বছরের জন্য বিক্রি করা শরী‘আতে নিষিদ্ধ। জাবের ইবনু আব্দুল্লাহ (রাঃ) হতে বণীত, তিনি বলেন রসুল (সাঃ) মু‘আওয়ামাহ বা কয়েক বছরের জন্য অগ্রিম বিক্রিয় নিষিদ্ধ করেছেন। (আবু দাউদ হাঃ ৩৩৭৫)। হযরত জাবের (রাঃ) হতে বর্ণীত, তিনি বলেন রসুল (সাঃ) (কোনো প্রকার গাছ বা বাগানের ফল) কয়েক বছরের জন্য অগ্রিম বিক্রি করতে নিষেধ করেছেন এবং (বিক্রিত ফল ক্রেতা কর্তৃক)…

Read More

ঋণগ্রহীতা ঋণ পরিশোধ না করে মারা গেলে ঋণদাতা ক্ষমা করলে তিনি কি পরিমান ছওয়াব পাবেন ?

ঋণগ্রহীতা ঋণ পরিশোধ না করে মারা গেলে ঋণদাতা ক্ষমা করলে তিনি কি পরিমান ছওয়াব পাবেন ?

ঋণগ্রহীতা ঋণ পরিশোধ না করে মারা গেলে ঋণদাতা ক্ষমা করলে তিনি কি পরিমান ছওয়াব পাবেন ? ঋণগ্রহীতা অস্বচ্ছল ও ঋণ পরিশোধ অপারোগ হলে তাকে ক্ষমা করে দেওয়াই উত্তম। যদি কোনো ঋণদাতা ঋণগ্রহীতার ঋণ মাফ করে দেন, তাহলে আল্লাহ তার দুনিয়ায় চলার পথকে সহজ করে দিবেন এবং পরকালের বিপদ থেকে রক্ষা করবেন। মহান আল্লাহ বলেন আর ঋণগ্রহীতা যদি অস্বচ্ছলতা ফিরে আসা পর্যন্ত সময় দিতে হবে। আর ছাদাক্বাহ করে দেওয়াই তোমাদের জন্য উত্তম। যদি তোমার জানতে। (সুরা…

Read More

কাকে যাকাত দেয়া জায়েয এবং কাকে দেয়া জায়েয নয়

কাকে যাকাত দেয়া জায়েয এবং কাকে দেয়া জায়েয নয়

কাকে যাকাত দেয়া জায়েয এবং কাকে দেয়া জায়েয নয়? আল্লাহ তা‘আলা ইরশাদ করেন ,যাকাত শুধুমাত্র ফকির, মিসকিন (যাকাত আদায়কারী কর্মচারীবৃন্দু এবং ইসলামের প্রতি অনুরাগী লোকদের  আকৃষ্ট করার জন্য ,দাসত্ব থেকে মুক্তি এবং ঋণগ্রস্থদের ঋণ পরিশধের জন্য যুদ্ধ সামগ্রীহীন ইসলামী যোদ্ধাদের অস্ত্র ক্রয়ের জন্য এবং নিঃস্ব মুসাফিরকে দিতে হবে) এ আট প্রকার ব্যক্তি যাকাতের মাল গ্রহণ করতে পারবে। এ আট প্রকার হতে যাদেরকে তাদের মন জয় করার জন্য দেয়া হতো তারা বাদ পড়বে। যেহুতু আল্লাহ তা‘আলা…

Read More

ফল ও ফসলের  যাকাত

ফল ও ফসলের  যাকাত

ফল ও ফসলের  যাকাতঃ ইমাম আবু হানীফা (র) বলেন যমিনে উৎপাদিত ফল ও ফসল কম হোক আর বেশী হোক এবং নদী কিংবা ঝরনার পানি দ্বারা তা উৎপন্ন হোক বা বৃষ্টির পানি দ্বারা উৎপন্ন হোক উভয় অবস্থাতেই উৎপাদিত ফসলের এক দশমাংশ যাকাত দেয়া ওয়াজিব।কিন্তু কাঠ বাশঁ ও ঘাসের ক্ষেত্রে এক দশমাংশ যাকাত নেই। ইমাম আবু উসুফ ও মুহাম্মাদ (র) বলেন ,উৎপাদিত ফসল পাঁচ আওসাকের কম হলে ওশর তথা যাকাত ওয়াজীব নয়। নবী করীম (সাঃ)-এর সা অনুযায়ী…

Read More

ব্যবসার মালের যাকাত

ব্যবসার মালের যাকাত

ব্যবসার মালের যাকাতঃ ব্যবসায়ের মালামালের ওপর যাকাত ওয়াজিব হবে, তা যে প্রকারেরই হোক না কেন। যখন তার মূল্য সোনা অথবা রুপার হিসাবে নেসাব পরিমাণ হবে যাকাত দেয়ার মূল্য সোনা ও রুপার যে মূল্য ধরা হলে ফকির ও মিসকিনরা লাভবান হয় তাই নির্ধারণ করবে। আর ইমাম আবু ইউসুফ (রঃ) বলেন যা দ্বারা সেগুলো ক্রয় করা হয়েছে তা দ্বারাই মূল্য ধরা হবে। অতঃপর যদি তা মুদ্রা মান ব্যতীত ক্রয় করা হয়ে থাকে তাহলে শহরের অধিক প্রচলিত মু্দ্রা…

Read More

স্বর্ণ ও রুপার যাকাত

স্বর্ণ ও রুপার যাকাত

স্বর্ণ ও রুপার যাকাতঃ স্বর্ণের যাকাতঃ স্বর্ণের পরিমান বিশ মিসকাল অর্থাৎ সাড়ে সাত তোলার কম হলে তাতে যাকাত দিতে হবে না। কাজেই যখন বিশ মিসকাল পরিমান স্বর্ণ কারো মালিকানায় এক বছর অতিক্রম হয় তাতে অর্ধ মিসকাল দিতে হবে। অতঃপর প্রত্যেক চার মিসকালের জন্য অর্ধ মিসকাল তথা দু কিরাত যাকাত দিতে হবে। আর ইমাম আবু হানীফা (রঃ)-এর মতে চার মিসকালের কম হলে যাকাত নেই। সাহেবাইন (রঃ) বলেন বিশ মিসকালের ওপর যা বেশি হবে তার যাকাত হিসাব…

Read More

সূদ ও ইসলাম

সূদ ও ইসলাম

সূদ ও ইসলামঃ সূদ প্রসঙ্গে ইসলামের অবস্থান সবচেয়ে কঠোর ও অনমনীয়। এ ব্যাপরে সুরা বাক্বারাতে মহান আল্লাহর ঘোষণা করেছেন।হে মুমিনগণ তোমরা আল্লাহকে ভয় করো এবং সূদের যে বাকি অংশ বাকী আছে তা ছেড়ে দাও, যদি তোমরা প্রকৃত মুমিন হও। যদি তোমরা তা না করো তাহলে আল্লাহ ও তাঁর রসুল (সাঃ)- এর পক্ষ হতে ঘোষনা শুনে রাখ। আর যদি তোমরা তওবা কর তবে তোমাদের মূলধন ফিরিয়ে নিতে পারবে। না তোমরা যুলুম করবে, না তোমাদের প্রতি যুলুম…

Read More

সরকারকে ট্যাক্স না দিয়ে ব্যবস্যা করা জায়েয হবে কি?

সরকারকে ট্যাক্স না দিয়ে ব্যবস্যা করা জায়েয হবে কি?

সরকারকে ট্যাক্স না দিয়ে ব্যবস্যা করা জায়েয হবে কি? সরকারের কোনো আইন ইসলামী আইনের বিরোধী না হলে এবং জনকল্যানকর হলে সে আইন মেনে চলাই কর্তব্য।( আবু দাউদ হাঃ২৬২৬, তিরমিযী হাঃ৩৭০৭)। তাই জাতীয় রাজস্ব আয়ের মাধ্যম হিসাবে সরকারীভাবে যে ট্যাক্স ধার্য করা হয় তা ফাঁকি দিয়ে ব্যবস্যা-বাণিজ্য করা ঠিক হবে না।কেননা রাষ্ট্রীয় স্বার্থ মানেই জনস্বার্থ।তাই জনস্বার্থ ক্ষতি করা ইসলাম অনুমোদন করে না।সাধারনভাবে একজন ঈমাণদার ব্যক্তি কখনো অন্যের ক্ষতিসাধন করে আপন স্বার্থ হাসিল করতে পারে না। সুতরাং…

Read More
1 2