বিড়াল খাবারে মুখ দিলে সে খাবার খাওয়া যাবে কী ?

বিড়াল খাবারে মুখ দিলে সে খাবার খাওয়া যাবে কী ?

হ্যাঁ যাবে কেননা বিড়ালের উচ্ছিষ্ট অপবিত্র নয়; বর তা পবিত্র। রসুল (সাঃ) বলেছেন বিড়াল নাপাক নয়। এটা তোমাদের আশেপাশে ঘনঘন বিচরণকারি বা বিচরণকারিণী। (আবু দাউদ হাঃ ৫৭,ইবনে মাজাহ হাঃ ৩৬৭, নাসাঈ হাঃ ২৬৮, আহমাদ হাঃ২৩১৯১, মিশকাত হাঃ ৪৮)। তবে তার মুখে অপবিত্র লেগে থাকলে তা না খাওয়া উত্তম।

স্বাভাবিক অবস্থায় ঘরে পোষা বিড়ালের উচ্ছিষ্ট তথা বিড়ালের মুখ দেয়া খাদ্য-পানীয় খাওয়া মাকরূহ। একান্ত ঠেকা না হলে ঐ খানা খাওয়া যাবে না, ফেলে দিতে হবে। তবে একান্ত ঠেকা হলে বা খুব গরীব কিংবা খাদ্য অভাব হল তা খাওয়া যায়। কিন্তু যদি এমন হয় যে, বিড়াল কোন ইঁদুর বা অন্য কোন নাপাকী খেয়ে সাথে সাথে কোন খাবারে মুখ লাগায় তাহলে ঐ খানা নাপাক বলে গন্য হবে এবং তা খাওয়া নাজায়িয ও হারাম হবে।

অবশ্য যদি শুকনো খাবার হয় এবং বিড়াল কোন খাবারে মুখ দেয়া মাত্র তাকে তাড়িয়ে দেয়া হয়, আর যে স্থানে সে মুখ দিয়েছে তা জানা থাকে, তাহলে তার মুখ দেয়া সে স্থানের খাবার ও তার আশেপাশের কিছু খাবার ফেলে অবশিষ্ট খাবার খাওয়া যাবে, যেখানে বিড়ালের মুখ পড়েনি বা মুখ পড়ার সন্দেহও হয়নি।

আলোচ্য প্রশ্ন উত্তরগুলি ভালো লেগে থাকলে অনেক অনেক শেয়ার করবেন এবং কমেন্ট করবেন। আপনাদের এই সুন্দর কমেন্ট আমাদেরকে নতুন প্রশ্ন উত্তর পোষ্ট করতে মোটিভেট করে এবং সব সময় আলোর বাণীর সঙ্গে যুক্ত থাকবেন ধন্যবাদ।

Leave a Comment