নিজ পিতা ব্যতীত অন্যকে পিতা বলে স্বীকার করা যাবে কী?

নিজ পিতা ব্যতীত অন্যকে পিতা বলে স্বীকার করা যাবে কী?

জেনে শুনে  অন্যকে পিতা বলে দাবী করা কুফরী। আল্লাহ তা‘আলার অভিশাপ হবে তার উপর জান্নাত হারাম হয়ে যাবে। সা‘দ ইবনু আবী ওয়াক্বাছ এবং আবূ বাকরা (রাঃ) বলেন ,রসুল (সাঃ) বলেছেন য ব্যক্তি তার পিতা ব্যতীত অন্যকে পিতা বলে দাবী করে অথচ সে জানে যে,  সেই ব্যক্তি তার পিতা নয়, তাহলে তার প্রতি জান্নাত হারাম। (বুখারী, মুসলিম, মিশকাত হাঃ ৩৩১৪, বাংলা ৬ষ্ঠ খন্ড হাঃ ৩১৭১) বিবাহ অধ্যায়।

হযরত আবু হুরায়রা (রাঃ) বলেন রসুল (সাঃ) বলেছেন, তোমরা তোমাদের পিতা হতে বিমুখ হয়ো না। যে ব্যক্তি তার পিতা হতে বিমুখ হল অর্থাৎ অন্যকে পিতা বলে স্বীকার করল সে কুফরী করল। (বুখারী,মুসলিম, মিষকাত হাঃ ৩৩১৫)।

হযরত আলী (রাঃ) বলেন রসূল (সাঃ) বলেছেন যে ব্যক্তি নিজ পিতা ব্যতীত অন্যকে পিতা বলে দাবী করে অথবা নিজ অভিভাবক ব্যতীত অন্যকে অভিভাবক বলে স্বীকার করে, তার প্রতি আল্লহ সকল ফেরেশতাগণ এবং সকল মানুষের অভিশাপি। তার নফল ও ফরয কোন ইবাদতই কবুল করা হবে না। (বুখারী, মুসলিম, মিশকাত হাঃ ২৭২৮, বাংলা ৫ম খন্ড হাঃ ২৬০৮ হজ্জ অধ্যায়)।

হযরত আবূ যার (রাঃ) বলেন আমি রসুল (সাঃ) কে বলতে শুনেছি যে ব্যক্তি জেনে শুনে নিজ পিতা ব্যতীত অন্যকে পিতা বলে দাবী করে সে ইসলামের অন্তর্ভুক্ত নয়। যে ব্যক্তি এমন বস্তুর দাবী করে যা তার নয় সে আমার শরী‘আতের অন্তর্ভুক্ত নয়। সে যেন  তার স্থান জাহান্নামে করে নেয়। আর কেউ যদি কাউকে কাফির অথবা আল্লাহর শত্রূ বলে সম্বোধন করে, আর সেই ব্যক্তি প্রকৃতপক্ষে তা না হয় তাহলে সে ব্যক্তি কাফির বা আল্লাহর শত্রূ হয়ে যাবে। (মুসলিম, মিশকাত হাঃ ১/৫৭পৃঃ)।

Leave a Comment