তামাক-বিড়ি কারখানায় কাজ করলে ছালাত হবে কী?

তামাক-বিড়ি কারখানায় কাজ করলে ছালাত হবে কী?

তামাকদ্রব্য ভক্ষণকারী এবং পানকারী জান্নাতে প্রবেশ করতে পারবে না। এমর্মে রসুল (সাঃ) বলেন আবূ দারদা (রাঃ) হতে বর্ণীত, তিনি বলেন রসুল (সাঃ) বলেছেন মাদকদ্রব্য ভক্ষণকারী বা পানকারী জান্নাতে প্রবেশ করতে পারবে না। (ইবনে মাজাহ হাঃ৩৩৭৬)।

আল্লাহ তা‘আলা তিন শ্রেণীর লোকের জন্য জান্নাতকে হারাম করেছেন। ১) মাদকদ্রব্য ভক্ষণকারী বা পানকারী। ২) পিতা-মাতার অবাধ্য সন্তান। ৩) দায়ুস, যে নিজ পরিবারের অশ্লীলতাকে মেনে নেয়। (তারগীব ওয়াত তারহীব হাঃ ২/২৯৯)। অতএব এ অবস্থায় ছালাত কবুল হবে না। কেননা বিড়ি বা তামাক নেশাদার বস্তুর অন্তর্ভুক্ত। রসুল (সাঃ) বলেন প্রত্যেক নেশাদার বস্তুই হারাম। (আবু দাউদ হাঃ ৩৬৮৭, মিশকাত হাঃ ৩৬৫২)।

অতএব তামাক উৎপাদন করা এর ব্যবসা করা এর সাথে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানে চাকরি করা সবই হারাম। কেননা সেখানে কাজের বিনিময়ে যে বেতন দেওয়া হয় তা ঐ হারাম বস্তুর মূল্য বা লভ্যাংশ থেকেই দেওয়া হয়। অথচ তা স্পষ্ট হারাম। রসুল (সাঃ) বলেন মহান আল্লাহ যখন কোনো জিনিসকে হারাম করে তখন তার মূল্যকেও হারাম করেন। (আবু দাউদ হাঃ৩৪৮৮)।



তাছাড়া সেখানে চাকরি করলে মূলত ঐ হারাম বা পাপ কাজেই সহযোগীতা করা হয়, যা করতে আল্লাহ তা‘আলা নিষেধ করেছেন। হে মুমিনগণ! হালাল মনে করো না আল্লাহর নিদর্শনসমূহ এবং সম্মানিত মাস সমূহকে এবং হরমে কুরবানীর জন্যে নির্দিষ্ট যন্তুকে এবং ঐসব জন্তুকে, যাদের গলায় কন্ঠাভরণ রয়েছে এবং ঐসব লোককে যারা সম্মানিত গৃহ অভিমুখে যাচ্ছে, যারা স্বীয় পালনকর্তার অনুগ্রহ ও সন্তুষ্টি কামনা করে। যখন তোমরা এহরাম থেকে বের হয়ে আস, তখন শিকার কর। যারা পবিত্র মসজিদ থেকে তোমাদেরকে বাধা প্রদান করেছিল, সেই সম্প্রদায়ের শুত্রুতা যেন তোমাদেরকে সীমালঙ্ঘনে প্ররোচিত না করে। সৎকর্ম ও খোদাভীতিতে একে অন্যের সাহায্য কর। পাপ ও সীমালঙ্ঘনের ব্যাপারে একে অন্যের সহায়তা করো না। আল্লাহকে ভয় কর। নিশ্চয় আল্লাহ তা’আলা কঠোর শাস্তিদাতা। (সুরা আল মায়েদা আয়াত নং ২)।

সুতরাং বিড়ি বা তামাকের কারখানায় কাজের বিনিময়ে যা উপার্জন করা হয় তা দিয়ে জীবিকা নির্বাহ করার কারণে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির ছালাত কবুল হবে না। কেননা আল্লাহ তা‘আলা পবিত্র, পবিত্র ছাড়া তিনি কোনো কিছুই গ্রহণ করেন না। (মুসলিম হাঃ১০১৫, মিশকাত হাঃ২৭৬০)।

আলোচনাটি ভালো লেগে থাকলে অনেক অনেক শেয়ার করবেন এবং কমেন্ট করবেন। আপনাদের এই সুন্দর কমেন্ট আমাদেরকে নতুন আলোচনা করতে মোটিভেট করে এবং সব সময় আলোর বাণীর সঙ্গে যুক্ত থাকবেন ধন্যবাদ।

Leave a Comment