জুম‘আর দিনে মানুষের ঘাড় ডিঙ্গিয়ে সামনের কাতারে যাওয়া যাবে কী?

জুম‘আর দিনে মানুষের ঘাড় ডিঙ্গিয়ে সামনের কাতারে যাওয়া যাবে কী?

সপ্তাহের অন্য কোনো দিনের চেয়ে জুম‘আর গুরুত্ব বেশি। জুমার দিনকে সাপ্তাহিক ঈদের দিন বলা হয়েছে। জুমার দিনের সওয়াব ও মর্যাদা ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আজহার মতো। এ দিন ইসলামের ইতিহাসে বড় বড় ও মহৎ কিছু ঘটনা ঘটেছে। জুমার গুরুত্ব আল্লাহ তা‘আলার কাছে এতই যে, কোরআনে জুমা নামে একটি সুরাও নাজিল করা হয়েছে।

সপ্তাহের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দিন হওয়ার কারণে জুমার দিনের বিশেষ কিছু আদব ও শিষ্টাচার রয়েছে। কিছু জুমা‘আর আগে কিছু মসজিদের কিছু খুৎবার সময়ের আর কিছু নামাযের আগে-পরের। আজ এখানে আলোচনা হবে, মানুষের ঘাড় ডিঙ্গিয়ে সামনের কাতারে যাওয়া যাবে কী?

খুৎবা চলাকালে যদি কেউ মানুষের ঘাড় ডিঙ্গিয়ে সামনের কাতারে যেতে চায়, তবে কথা না বলেই তাকে বসিয়ে দেয়া আবশ্যক। বসে যাওয়ার জন্য তাকে ইঙ্গিত করবে বা তার কাপড় টেনে ধরবে। তবে উত্তম হচ্ছে খতীব সাহেব নিজেই এ কাজ করবেন এবং তাকে বসিয়ে দিবেন।



যেমন রসুল (সাঃ) করেছিলেন, তিনি খুৎবা দিচ্ছিলেন এমন সময় দেখলেন জনৈক ব্যক্তি মানুষের ঘাড় ডিঙ্গিয়ে সামনের দিকে যাচ্ছে। তিনি তাকে বললেন বসে পড়। তুমি মানুষকে কষ্ট দিয়েছো। (নাসাঈ, আবু দাউদ: অধ্যায় জুম‘আর নামায ও ইবনে মাজাহ: অধ্যায় নামায প্রতিষ্টা করা)।

আলোচ্য প্রশ্ন উত্তরগুলি ভালো লেগে থাকলে অনেক অনেক শেয়ার করবেন এবং কমেন্ট করবেন। আপনাদের এই সুন্দর কমেন্ট আমাদেরকে নতুন প্রশ্ন উত্তর পোষ্ট করতে মোটিভেট করে এবং সব সময় আলোর বাণীর সঙ্গে যুক্ত থাকবেন ধন্যবাদ।

Leave a Comment