কুরবানীর চামড়ার টাকা মসজিদ ও মাদ্রাসায় দেওয়া যাবে কী?

কুরবানীর চামড়ার টাকা মসজিদ ও মাদ্রাসায় দেওয়া যাবে কী?

ইসলাম নিয়ম অনুসারে মসজিদ ও মাদ্রাসায় কোরবানির চামড়া বা চামড়ার বিক্রিত অর্থ দেওয়া যায়েজ নয়। তবে কোনও মাদ্রাসা যদি দুঃস্থদের বিনা খরচে লালন-পালন করে সেই মাদ্রাসায় তা দান করা যাবে। সাধারণত আমাদের দেশের কওমি মাদ্রাসায় চামড়া সংগ্রহ করা হয় দুঃস্থ শিক্ষার্থীদের লালন পালনের খরচের জন্য।

যারা যাকাত ফিতরা পাওয়ার উপযুক্ত তারাই কুরবানির চামড়ার অর্থ পাওয়ার হকদার। তবে এক্ষেত্রে ইয়াতিম গরিব তালিবুল ইলম তথা ইলমে দ্বীনের গরিব শিক্ষার্থীকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে দেয়া যাবে। তালিবুল ইলম তথা ইলমে দ্বীনের শিক্ষার্থী যদি ইয়াতিম বা গরিব হয় তবে তাকে যাকাত  ফিতরা ও কুরবানির চামড়ার মূল্য প্রদানে বেশি ফজিলত রয়েছে।

ওশর যাকাত ও কুরবানীর চামড়ার টাকা মসজিদে দেওয়া যাবে না। কারণ সুরা আত-তাওবার ৬০ আয়াতে যাকাতের যে ৮টি খাত উল্লেখ করা হয়েছে, মসজিদ তার অন্তরর্ভুক্ত নয়। তবে মাদ্রাসা ফী সাবীলিল্লাহর অন্তুর্ভুক্ত হিসাবে চামড়া ও যাকাত-ওশরের টাকা সেখানে প্রদান করা যায়। (ফাতাওয়া আরকানিল ইসলাম পৃঃ ৪৪২, ফতওয়া নং ৩৮৬, মাজমূ‘উ ফাতাওয়া ওয়া রাসাইল ১৮/২৫২-২৫৩)।

আলোচ্য প্রশ্নউত্তর গুলো ভালো লেগে থাকলে অনেক অনেক শেয়ার করবেন এবং কমেন্ট করবেন। আপনাদের এই সুন্দর কমেন্ট আমাদেরকে নতুন আলোচনা করতে মোটিভেট করে এবং সব সময় আলোর বাণীর সঙ্গে যুক্ত থাকবেন ধন্যবাদ।

Leave a Comment